• কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে আন্তঃবিভাগীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান

  • Post by : tsit | Post on 1 Oct 2018

কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে আন্তঃবিভাগীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান

 

 

চট্টগ্রাম: বিতর্ক জ্ঞানের পরিধিকে বিকশিত করে উল্লেখ করে কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি বোর্ডের সেক্রেটারি লায়ন মো. মুজিবুর রহমান বলেছেন, বিতর্কের মাধ্যমে অনেক বিষয় সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যায়। নানা বিষয়ে ধারণা পেতে শিক্ষাঙ্গনে বির্তক প্রতিযোগিতার আয়োজন করে শিক্ষার্থীদের জ্ঞান আহরণের সুযোগ করে দিতে হবে।

শনিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে আন্তঃবিভাগীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান এম এম মোশাররফ করিমের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য ও কবি মাহবুবা সুলতানা শিউলি, রেজিস্ট্রার মো. নাজিম উদ্দিন সিদ্দিকী, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক  এএসএম সাইফুর রহমান, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের বিভাগীয় প্রধান বেলাল নূর আজিজি, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান রাজিদুর রহমান, ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক তাসনিয়া ফারজানা, আইন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান এএসএম তাজউদ্দিন আহমেদ এবং হসপিটাল অ্যান্ড ট্যুরিজম বিভাগের বিভাগীয় প্রধান শাকিল আহমেদ। 

মূলত সাংসদীয় বিতর্ক হিসেবে আইন বিভাগ এবং ইংরেজি বিভাগের মধ্যে ফাইনাল পর্বের বিতর্ক অনুষ্ঠিত হয়।

‘মত প্রকাশের স্বাধীনতা’ বিষয়ে আন্তঃবিভাগীয় বিতর্কে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে আইন বিভাগ এবং রানার আপ হয়েছে ইংরেজি বিভাগ।

কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগের প্রভাষক ও সিবিআইইউ ডিবেটিং সোসাইটির মডারেটর নাসরিন সুলতানা এবং ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক নওরিন তামান্নার দ্বৈত সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্হিত ছিলেন আইন বিভাগের প্রভাষক রাজিদুর রহমান, ব্যবসায় প্রশাসনের প্রভাষক জান্নাত, আদিতা বড়ুয়া, তাওসিফ, মারুফ আল মুনতাসির, ইংরেজি বিভাগের এইচ মাহমুদ, মাইনুল ইসলাম নাজমুল, এইচ এম আরিফ তুহীন, সাফাত নাঈম প্রমুখ।

আইন বিভাগ প্রধান এএসএম তাজউদ্দিন আহমেদ সাংসদীয় বিতর্কে স্পিকারের ভূমিকা পালন করেন এবং বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার নাজিম ঊদ্দিন সিদ্দিকী, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এএসএম সাইফুর রহমান, ইসলামিক শিক্ষা বিভাগীয় প্রধান বেলাল নূর আজিজি, ব্যবসায় প্রশাসনের বিভাগীয় প্রধান রাজিদুর রহমান।

বিতর্কে টুর্নামেন্ট সেরা বিতার্কিক নির্বাচিত হয়েছেন আইন বিভাগের ছাত্র সজিব কর্মকার এবং ফাইনালে সেরা বিতার্কিক নির্বাচিত হয়েছেন ইংরেজি বিভাগের ছাত্রী মিফতাহুল জান্নাত।

প্রধান অতিথি লায়ন মো. মুজিবুর রহমান সেরা দুইজন বিতার্কিককে ল্যাপটপ দেওয়ার ঘোষণার মধ্য দিয়ে আন্তঃবিভাগীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা শেষ হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৮
এসবি/টিসি